বািণেজয বসিত লখণষী-সরসবতী

পরিতেবশীর আলাপচািরতা

২০০৮ সােলর িবশব মনদার পর েথেকই এক েমরু িবশব নতুন এক রাসতার েখােঁজ িছল সমভবত। কারণ ঠানডা যুেদধর অবসােনর পর িবেশবর আরথ-সামািজক এিরনায় একতরফাভােব িবশব গণতনতেরর পরহরী মারিকন যুকতরাষটর তাঁর েদেশর  উননত িশখণষা, িবঙগান, পরযুিকত এবং হালিফেলর আধুিনক তথয-পরযুিকত িনেয় হািজর িছল। িকনতু ‘টু ইন টাওয়ার’ ( ৯/১১) এর পতেনর পর আেমিরকার আিভজােতয এক চরম শলাঘা অনু্ভূত হয়। এই ঘটনার মাতর কেয়ক বছেরর মেধয মারিকন ‘েবল আউট’ তথা ‘েল মযান বরাদারস’ এর পতন সারা িবশবেক দুিট সমসযার সামেন এেন েফেল এক, সরা িবেশব উননয়েনর হার কমেত থাকা। দুই, ‘সনতরাস’ বা ‘েজহাদী’ নামক এক ভয়ঙকর শীতল শিকতর আিবরভাব। খুব সমভবত এটা হওয়ার িছলই। ১৯৪৫ সােল যুদধ েশেষ মারিকন পররাষটরনীিত িতনিট লখণষ িনেয় কাজ শুরু কের। ‘টরযুমযান নীিত’ সফল। ‘মারশাল’ পিরকলপনাও সফল। েশেষ থােক ‘ডােঙকল ডরাফট’ বা ‘গঁযাট চুিকত’। িবশবায়ন বা ‘েগলাবালাইেজশন’ সারা িবশবেক েবাঝােত েপেরেছ ‘FREE Trade নয় FAIR Trade’ । নতুন শতেকর শুরুেত এই রকম একিট অপরতযিশত আকরমণ আেমিরকােক একরকম বাধয করল দীরঘসথায়ী যুেদধ নামেত। ইরাক যুদধ তাই িভেয়তনােমর যুেদধর েথেকও ইিতহােস  েবশী জায়গা কের িনেয়েছ। আরথ-রাজৈনিতক িবষেয় আগরহী বযিকতরা চরচা করেবন এবং  মেন রাখেবন। িবেশবর বূহততম গণতনতর মারিকন যুকতরাষটর ইরাক এবং আফগািনসতান েথেক িশখণষা িনেয় আরথ-সামিরক নীিত েথেক সের এেস আরথ-সামািজক েখণষতরেক েবশী গরুতব িদেত চাইেছ। যার ফলসবরুপ ইরাক েথেক েসনা িফিরেয় েনওয়া হেয়েছ। আফগািনসতানও এক নতুন সকাল েদখার অেপখণষায়। েপরিসেডনট বারাক ওবামার েনতিরেতব  আেমিরকান কংেগরস সমনবেয়র সংসকূিতেত মনদার েজর কািটেয় Health Care, িশখণষা, েবকার সমসার সমাধান এবং Immigration of 21st century েখতেরর সামািজক িবষয়গুিলেত েবশী গুরুতব িদেচছ।  সীিমত ঙগােন পরযােলাচনা করার পর একিট িবষয় উেঠ আসেছ। ২০০৮ সােলর িবশব মনদার পর আেমিরকার েনতূেতব আরও  এক নতুন িবশবেক েদখার অেপখণষায় রেয়েছ এক িবংশ শতাবদীর িশিখণষত সেচতন নাগিরক। আমরা জািন ১৯২৯ সােলর পর ‘recession’ েয ভাষায় িবশব বািণজয দুিনয়ােক সমনবেয়র বািণজয িশিখেয়িছল ‘কিপবুক’ না হেলও একিবংশ শতাবদীর িদবতীয় দশক দুিট শিকতশালী আতমিনরভরশীল েদেশর উথথান বারতা িদেচছ।  ভারত এবং িচন নামক এই দুিট েদেশর আরথ-সামািজক উথথানেক আেমিরকা হালকাভােব িনেচছ না।

এিশয়ার নতুন শিকত িক মানবতা েচনােব…..

আেগ আমরা একঝলক েদেখ েনব এই নতুন অেখণষ ভারত- িচেনর আরথ-সামািজক উননয়েনর েপরখণষাপট। ভারেত উৎপাদন িভিততক িশেলপর উপর উৎসাহ িদেত চাইেছ সরকার। িবশবািয়ত বাজােরর দািব েমেন উদার অরথনীিতর সমরথেন পরধানমনতরী ড: মনেমাহন িসংহ  িশলপনীিতেতও সবচছতা আনেত চাইেছন। সূতেরর খবর ভারেত ২০০৪-০৫ আরিথক বছের ( per capita income in 2004-05) পার কযািপটা আয় িছল Rs. 24,143/-  বরতমােন ২০১২-১৩ আরিথক বছের েবেড় হেয়েছ Rs. 68,747/-  ।  জুলাই ৮, ২০১৩ ভারেতর অরথনীিতেক শিকতশালী করেত কেয়কিট গুরুতবপূরণ িসদধানত েনওয়া হেয়েছ।   পরধানমনতরী ড: মনেমাহন িসংেহর েনতিরেতব  উচচখণষমতাসমপনন কিমিটর ৈবঠেক িসদধানত হেয়েছ। ২০২৫ সােলর মেধয ইসপােতর উৎপাদন  ৩০ েকািট টেন িনেয় যাওয়া হেব। ইসপাত মনতরকেক দু মােসর মেধয পিরকলপনা ৈতির কের েফলেত হেব। পাশাপািশ বসতর রফতািনর পিরমাণ ৩০ শতাংশ বাডােত হেব বেল ৈবঠেক িসদধানত হেয়েছ।  ভারতীয় পরযুিকতর সাহােযয েদেশর মেধযই ৭০ েথেক ১০০ আসেনর েছাট যাতরীবাহী িবমান ৈতিরর িসদধানতও হেয়েছ। ওই িদেনর ৈবঠেক পরধানমনতরী বেলন, ”েদেশর আরিথক বূরিদধ ৮ েথেক ৯ শতাংেশ রাখেত েগেল উৎপাদন েখণষতেরর বূিদধ হেতই হেব। এর জনয উননয়েনর যাবতীয় বাঁধা দূর করেত হেব।”  এর আেগই িসদধানত হেয়েছ ভারেত চারেট আরিথক কিরেডার িনরমােণর। ভারেত িবেদশী িবিনেয়াগ বাড়ােত ইউিপএ-২ সরকার সমসত িবতরেকর উরেদধ উেঠ িবেদশী িবিনেয়াগকারীেদর জনয বাজার খুেল িদেয়েছ।   FDI  এর েখণষতের সরকার েয েসটটেমনট িদেছছ তােত গত কেয়ক বছেরর তুলনায় িবেদশী িবিনেয়াগকারীেদর আগরহ েবেড়েছ। ৯ জুলাই ভারেতর অরথমনতরী িপ িচদমবরম আেমিরকা সফর কেরন। সেঙগ িছেলন ভারেতর বািণজযমনতরী আননদ শরমা। পের েযাজনা কিমশেনর উপাধাখণষ মেনটক িসং অহলুওয়ািলয়া দেল েযাগ েদন।  টাকার দাম করমশ: িনমনমুখীন হওয়াটা একিট অসথায়ী এবং অসথীিতশীল িবষয়, েযমন আেলাচনায় রাখা হেয়িছল। পাশাপািশ  মারিকন িবিনেয়াগকারীেদর সেঙগ ৈবঠকও কেরন ভারেতর অরথনতরী। তঁর সফরসূিচেত িছল ভারত-মারিকন  বািণজয পিরষেদর সভায় বকতবয রাখার িনরঘনট। বরতমান ভারতীয় বাজাের এখনও একটা টাল মাটাল অবসথা রেয়েছ। এমনটা আেছ বেলই িবেদশী িবিনেয়াগকারীরা তািকেয় আেছন ২০১৪ সােলর িনরবাচন পরবরতী অবসথার জনয। আই এম এফ বা   International monetary fund  সূতেরর খবর, ভারেত বূিদধর হার ২০১৩-১৪  সােল িছল ৫.৬। ২০১৪-১৫  আরিথক বছের আরিথক বূিদধর হার েবেড় দাঁড়ােব ৬.৩। গত কেয়ক বছেরর ঝড় ঝাপটা সামেলও ভারত নামক ‘আধা কূিষ-আধা উননত’ েদশিটর িবকাশ সামেনর সািরেত।

২০১১ সােল ২৭ িডেসমবর িদিললেত ‘উননয়নশীল ভারত’ পরসেঙগ পরদতত ভাষেণ অধযাপক অমরতয েসন বেলন, ”ইদানীং পরধানত িকছু সামিজক সূচেকর পরিত িবেশষ নজর েদওয়া হেচছ। েসগুিল গুরুতবপূরণ, তেব উননয়নেক িক শুধু েসগুিল িদেয়ই মাপা যায়? উননয়ন আরও বড় বযাপার। ২০০০ সােল রাষটরপুঞজ েয ‘সহসরােবদর অঙগীকার গহণ কেরিছল, তােত উননয়েনর অনয কেয়কিট িদকেকও সবীকূিত েদওয়া হয়। যথা, গণতনতর এবং মানবািধকার। অরথৈনিতক বূিদধ হয়েতা উননয়েনর এই বূহততর লখণষগুিল পূরেণর কােজ িবেশষ সহায়ক হয়না। িকনতু রচনার সময় আমােদর এই িবষেয় িবেশষভােব সতরক থাকেত হেব েয, অনয নানা উেদদশয সাধন করেত িগেয় এই বূহততর লখণষগুিলেক েযন  অবেহলা করা না হয়। েযমন, ভারেত  গণতনতেরর অনুশীলন অেনকাংেশই সফল। সমােজর দািরদরতম বরেগর মানুষও রাজৈনিতক এবং সামািজক পরকিরয়ায় েযাগ িদেত আগরহী। এবং তৎপর। গণতনেরর এই বযপক চরচােক ভারতবাসীর জীবন যাতরার মান উননয়েনর পেখণষ অপারসিঙগক মেন করার েকানও কারণ েনই।”  এই পিরেপরিখণেত উেললখ থাক বহু চরিচত ‘১০০ িদেনর কােজর পরকলপ’ বা ‘মহাতমা গানধী জাতীয় করম িনশচয়তা পরকলপ’। এই পরকলপ ভারেতর মত গরামীন  িনরভর অরথনীিতর ভারসাময আনেত অেনকটা সহায়তা কেরেছ। পাশাপািশ সানতন এবং ৈবিদক ভারেতর কােছ িশখণষার অিধকার, তথয জানার অিধকার, িশশুশরম পরথার িবেলাপ ভারত নামক সবাধীনতা  উততর আধুিনক ভারতেক  ‘INDIA’ নােম পিরিচত করেত পারেছ। িদবতীয় দফায় ইউিপএ সরকার কংেগরস সভােনতির শরীমিত সিনয়া গানধীর েনতিরেতব ‘খােদযর অিধকার’ ভারতেক নতুন ভাষা িদেত চাইেছ। েয ভাষা সরবজনীন অিধকার িহসােব সামািজক সবীকূিতর অেপখণষায়। সমসত রাজৈনিতক কূট িবতরকেক এিড়েয় এ কথা তৎসম শেবদর শিকতেত বলা যায়। েনােবল জয়ী অধযাপক অমরতয েসেনর গণতনতেরর পেখণষ ভিবষৎ উচচারন অখণষের অখণষের িমেল যােচছ।

পাশাপািশ গত কেয়ক বছেরর মানদেনড িচেনর আরিথক বূিদধ িচেনর িহসােব ভারেতর তুলনায় এিগেয় আেছ। এমনটাই  িচেনর দািব। আই এম এফ বা International Monetary fund এর িরেপারট েমাতেবক েয িহসাব পাওয়া যােছছ, ২০১৩-১৪ অরিথক বছের িচেনর আরিথক বূিদধ িছল ৭.৮। ২০১৪-১৫ এর পূরবাভাষ ৭.৭। ১৯৪৯ সােলর পর মাও েসতুঙেয়র িচন ‘তাচাই’ মেডলেক সামেন েরেখ সারা বিহরিবেশবর সেঙগ যুঝেত  ৈযাথ খামার বাবসথায় আটেক িছল। আিফংেয়র েনশা কািটেয়  ‘িবড়ােলর রঙ না েদেখ িবড়াল ধরেত হেব’ এই মনতরেক সামেন েরেখ েদং এর িচন িবেশষত ইংরািজ না জানা িচন েখলনা বনদুক, েখলনা ডরাগন  িচেনর পরািচর টপেক এিশয়া, ইউেরাপ ভায়া আফিরকা, লািতন আেমিরকার কিরেডার িদেয় আেমিরকােতও আছেড় পেড়েছ। রফতািন বািণেজয িচন ডাইনােসারেক চযােলঞজ জািনেয় বেসিছল। এসব সেতবও সতযটা হেচছ, িচেনর জনসংখযার ৬ শতাংশ মানুষ এখনও গরীব । একিট সূতর বলেছ ভারেতর সেঙগ তুলনায় িচেনর রফতািন বািণজয ১০০ লাখ েকািট। েসখােন  ভারেতর মাতর ৮ লাখ েকািট। ভারেত িবদযুৎ পরিত ইউিনট গড় ৬ টাকা। িচেন পরিত ইউিনট ১ টাকা। িচেনর ৈসনযা সংখযা ৩৩ লাখ। ভারেত েসখােন েসনার সংখযা মাতর ১১ লাখ। ১৯৪৭ সােল ভারেত ১ টাকায় ১ডলার পাওয়া েযত। েকনদরীয় অরথমনতরক সূতেরর খবর, িচেনর িবপুল িবেদশী মুদরার সঞচেয়র পিরমাণ ৩ লখণষ ২০ হাজার মারিকন ডলার। তুলনায় ভারেতর সঞচয় অিত নগণয। মাতর ৩২ হাজর  েকািট ডলার। এই িহসাব পরকােশয এেলও পরাকতন িবেদশ সিচব কূষণান শরী িনবাসন  The Telegraph (India) ১০ জুলাই, ২০১৩ উততর সমপাদকীয়েত িলখেছন,   “China is still poor country, with about 6 percent of the population in absolute poverty and its per capita income around what Japan’s had been in 1963. The top 10 percent capita own of national income, and its Gini coefficient of inequality has touched o.483, well ab0ve 0.4 the United Nations’ warning level. As the world’s second largest economy suffers a deepening slowdown, neighboring rival India could be a major benefactor from China’s lackluster performance, say economists.”

ভারত এবং দিখণষণ পূরব এিশয়ার অনযতম অরথনীিতিবদ শরী েচতন আিহয়া (Chetan Ahya) মরগান েসটনিলেত িলেখেছন, ”China slowdown: why India could be winner– CNBC money control.com Financial Portal এই েলখািট পরকাশ কের। “India will be less exposed to the trend of a China slowdown, due to limited trade linkage with China, and will likely gain from lower commodity prices and improvement in terms of trade,  ”India and South East Asia economist at Morgan Stanley wrote in a report published on Wednesday. China accounted for 53 percent to 111 percent of the total increase in global demand for various commodities in 2012, according to Morgan Stanley. Hence a decline in demand should put some downward pressure on prices, the bank said, a positive for net commodity importer India.Commodities account for a large portion of India’s current account deficit, with the country importing close to 80 percent of its overall crude oil requirements, for example.The impact of a slowdown in China is expected to be more pronounced on industrial commodities including aluminum, steel, iron ore, copper, and coal, as the economy accounts for a much higher proportion of global demand for these resources.Citi economist Rohini Malkani shared a similar view, writing in a note on Thursday, “China pains could be India gains. The China slowdown fear does play out well for India [given] its commodity user status.”A slew of disappointing economic data out of the mainland in the recent weeks has heightened concerns over the outlook for the economy.China is due to release its second quarter gross domestic product (GDP) data on July 15, which is expected to show growth decelerating to its lowest level in over two decades to 7.5 percent from 7.7 percent in the previous three months.On the trade front, linkages between India and China remain relatively low, said economists. The South Asian nation’s exports to China, including Hong Kong, account for 8 percent of overall shipments, according to data from the bank.”

Biggest Losers

”The biggest losers from the slowdown in China’s growth, as the economy rebalances from an export and investment-led one to a consumption-driven economy, are major commodity producing emerging markets.”China’s slowdown will impact on different commodity groups in different ways. Metals producers are likely to suffer most since China’s investment boom has been the key driver of stronger demand for copper, iron ore and steel over the past decade. But this is now cooling and is likely to weaken further,” economists at Capital Economics wrote. The research firm sees growth in the mainland slowing to 7 percent in 2014 and 6.5 percent in 2015.”We are most concerned about large exporters of metals that have run external deficits in recent years. South Africa, Zambia, Chile and Peru look especially vulnerable,” they said.”

-By CNBC’s Ansuya Harjani, Copyright 2011 cnbc.com

সুতীরথ পতরনিবশ জুলাই ১২, ২০১৩ তািরেখ িহনদুসতান টাইমেস িলখেছন,  ”Bilateral trade between India and China have grown in the last decade but recent trends suggest that the aim of taking it to the $100 billion figure by 2015 is unlikely to be fulfilled, S Jaishankar Indian ambassador to China,  has said ‘After touching an all-time high of $73.9 billion in 2011, trade between the two neighbors heavily tilted in China  favor in the first place has been sharply falling.”   িচেনর এই আরিথক ধীর গিতর অনযতম কারণ রফতািন বািণেজযর সীমানদধতা। িচেনর আরিথক শরীবূিদধর কারণই িছল সসতা শরেমর ৈতির ‘িকেচন টু কািবেনেট’ বযবহার করার ডেমিসটক পণযসামগরী। আেমিরকা এই সব সামগরী আমদািন কিমেয় িদেলই িচেনর দফারফা অবসথা হয়। রফতািন ছাড়াও িবিনেয়াগ কেম আসা এবং েদেশর আভযনতিরন  দুরনীিতও অনযতম একিট কারণ। এমত অবসথায় িচন আর পুরেনা ভুল করেত চাইেছ না। ‘সমাজতানতিরক বাজার অরথনীিতর’ মাধযেম ইিতমেধযই িচেনর বাজার খুেল েদওয়া হেয়েছ। েম ২০, ২০১৩ েত িচেনর নতুন পরধানমনতরী িল খযািজয়াং ভারত সফর কের ভারেতর পরধানমনতরী ড: মনেমাহন িসংহেয়র সেঙগ ৈবঠক কের ভারেতর সেঙগ ‘েকাঊশলগত েবাঝাপড়া’ বাড়ােনার িসদধানত িনেয়েছণ। ভারেতর সেঙগ উেললখেযাগয ছিট িবষেয় িচেনর সমেঝাতা হেয়েছ। (১) দু েদেশর ধরুপদী সািহেতযর অনুবাদ পরকলপ। (২) ভারেতর ৈকলাস-মানস সেরাবর যাতরায় িবেশষ সুিবধা। (৩) েমােষর মাংস, মাছ, পরকিরয়াজাত খােদযর রফতািন উননয়ন। (৪) দু েদেশর িবিভনন শহেরর মেধয েযাগােযাগ বাড়ােনা (পেরােখণষ ১৯৬২ সােলর িতকত অিভঙগতা মেন েরেখ সীমানত সমসযােক গুরুতব েদওয়া। (৫) দু েদেশর মেধয নদীর জল বেয় িনেয় যাওয়া িনেয় তথয িবিনময়। (৬) িনকািশ এবং েসচ বযাবসথার উননয়েন সমেঝাতা। িচেনর পরধানমনতরীর সফেরর পেরই ভারেতর পরিতরখণষামনতরী এ েক অযানটিন িচেন িগেয় পরিতরখণষা সংকরানত িবষেয় আেলাচনা কের আেসন। বরতমান ভারত-িচন নতুন সমপরক বুিঝেয় িদেচছ ভারেতর বামপনথীেদর অদূরদরিশতার মূলয দু েদেশর নাগিরকেদর পরভূত িদেত হেয়েছ।

িচেনর সেঙগ সমপরক ঊননয়ন কেরই ভারেতর েনতিরতব েথেম থাকেত চাইেছন না। পুরেনা আরও এক িববদমান রাষটর পািকসতােনর সেঙগও ভারেতর সমপরক সবভািবক হেয় আসেছ। পািকসতােনর িশলপপিতরা ইিতমেধয ভারেত িবিনেয়ােগর আগরহ েদিখেয়েছ। সংসকূিতক েখতেরও দুেদেশর িবিনময় ‘বাঁধ েভেঙগ দাও বাঁধ েভেঙগ দাও ভাওেঙগা/ জীরণ পুরাতন যাক েভেস যাক/ যাক েভেস যাক/ আমরা শুেনিছ ওই/ মা..ৈভ..মা ৈভ…।’   েম ২১, ২০১৩ পািকসতােনর লাহর কেলেজ রবীনদরসঙগীত বাজােনা হয়। পািকসতােন নতুন পরধানমনতরী নওয়াজ শরীফ দািয়তব েনওয়ার পর পািকসতান নামক রাষটরিট গত শতাবদীর কলানত-শরানত রকতাত রাসতার গলািন মুেছ নতুন  শতাবদীেত উননয়েনর শপথ িনেত চাইেছ।  The Christan Science Monitor Jesse Kaplan জুলাই ৮, ২০১৩ তািরেখ িলখেছন, ”Trade is not a cure-all for grinding poverty, but a free-trade deal between Pakistan and India would help foster economic growth and regional peace. And the political timing has never been better. Pakistan’s new prime minister, Nawaz Sharif, should seize the moment. Pakistan‘s new prime minister, Nawaz Sharif, confronts no shortage of challenges: an economy at risk of collapse, a woefully inadequate electrical supply that causes rolling blackouts across the country, rising ethnic and sectarian tensions, and the threat of internal terrorism Yet Mr. Sharif also has a significant economic and political opportunity, and he should seize it. Pakistan is due to normalize trade relations with India this year by granting its neighbor and strategic rival most-favored-nation trade status. Sharif should go further and pursue a full-blown India-Pakistan free-trade agreement, much like the North American Free Trade Agreement

The longstanding animosity in India-Pakistan relations has left South Asia as one of the world’s least-integrated regions. Since the two countries were created in the 1947 partition of British India, they have fought four wars. As a result, intraregional trade in South Asia accounts for only 5 percent of the region’s total trade, a proportion dwarfed even by Africa’s 10 percent of intraregional trade (not to mention East Asia’s 53 percent). Existing organizations such as the South Asian Association for Regional Cooperation have been unable to promote anything more than cosmetic integration. The Pakistan-India border is 1,800 miles long, but trade flows only through one official crossing. Elaborate customs procedures, difficult visa regimes, and restrictions on foreign investment make trade between the neighbors difficult at best. Clearing away these obstacles could boost trade to $40 billion a year, analysts estimate, compared with less than $3 billion last year. Trade is not a cure-all for stunted development and grinding poverty, but it would help foster growth in two countries whose lack of openness to each other hinders their economic advancement. A free-trade agreement would lead to increased investment and tourism for both countries, reduced prices for consumers, greater revenues for businesses, and a newly diverse and more innovative group of suppliers for both countries’ people. And, as the US National Intelligence Council has warned, improved trade may be the only way to keep South Asia peaceful – no small concern considering the countries’ nuclear arsenals For Pakistan and India, moreover, the timing may never be better. Sharif has nearly unprecedented support for a Pakistani civilian leader. He has no viable rivals. As a result of his party’s strong election performance in May, he does not even require a coalition to govern.Sharif also draws the bulk of his support from the Punjab Province, the most economically prosperous and industrialized region, and thus the one best-positioned to benefit from a deal. Sharif’s Indian counterpart, Manmohan Singh, has seen his long premiership weakened by scandals and unruly coalition partners. His Congress Party desperately needs a win to increase voter enthusiasm ahead of next year’s general election. The Indian public is disenchanted with internal security problems, anemic economic growth, and the bland performance of Mr. Singh’s heir apparent, Rahul Gandhi.For Singh, like Sharif, a trade deal could provide an economic and political boost. The influential Indian business community would reap major benefits from a trade deal with the 180 million consumers next door. And Singh, who was born in what is now Pakistan, originally made his name as an economic reformer, launching India’s economic liberalization as finance minister in 1991.

To be sure, securing a trade agreement would not be easy. The Pakistani military is reflexively suspicious of India and scuttled an attempted opening of relations in 1999 during Sharif’s prior premiership. Singh’s coalition partners remain troublesome. Both groups would have to be appeased to allow a trade deal to go forward. And both countries will need to keep their territorial dispute over Kashmir as a separate issue.Still, nothing is ever easy in South Asia, and this opportunity is better than most. Nawaz Sharif should take it. এই েলখািট বরতমান ভারত পািকসতােনর িদব-পািখণষক সমপরক এবং ‘বািণেজয বসিত লখণষী সরসবতী’ র সীমানত পরাচীর বুঝেত সাহাযা করেব।

সভযতার ইিতহােস মারিকন যুকরাষটেরর দািয়তব

নতুন শতাবদীর ধবংসাবেশষ িনেয় ২০০৮ সােল একজন অেচনা অজানা কােলা মানুষ েপরিসেডনেটর দািয়তব িনেলন। মারিটন লুথার িকং (জুিনয়ার) এর পর বারাক ওবামা। েপরিসেডনট বারাক ওবামা কােদর েলাক? বহুসংসকূিতর বরিণল গণতনতেরর আধুিনক  উচচিশিখণষত নাগিরক মানেত পারিছেলন না। নতুন েপরিসেডনট কােলা রঙেয়র মানুষিট আেমিরকা নামক একিট দুই শতাবদীরও েবশী পরাচীন রাষটেরর মূলযেবাধ কতটা বুঝেবন? িকনতু েশষ পরযনত েপরিসেডনট বারাক ওবামা পরমাণ করেলন।  ইরাক েথেক যুদধিবদধসত েসনােদর তােঁদর পিরবােরর কােছ িফিরেয় েদওয়ার িসদধানত এবং আফগািনসতােন দীরঘসথায়ী যুেদধর অবসােনর েঘাষণা েপরিসেডনট বারাক ওবামােক িবেশবর েযাগয েনতা িহসােব মানেত মারিকন নাকউঁচু িশিখণষত নাগিরক সমােজর অসুিবধা হয়িন। গনতানতিরক অিভজাত আেমিরকা ‘আমরা িমেলিছ আজ মােয়র ডােক’ সুর িমিলেয় সারা িবশবেক িনেজেদর আতমীয় কের িনেয়েছ। ঊৎকরষতােক সবীকূিত িদেত িদবধা কেরিন আেমিরকার পরাচীন সভযতা।  পাশাপািশ েপরিসেডনট বারাক ওবামা ঐিতহািসক আরও দুিট িসদধানত িনেলন এক LGBT এবং দুই   HEALTH CARE. আভযনতরীন েখণষতের এই দুিট িসদধানত ছাড়াও  েবকার সমসযার সমাধােন আেমিরকা েপরিসেডনেটর েনতিরেতব ২০২০ সােলর মেধয ৫৫ িবিলয়ন নতুন চাকির বা কােজর সুেযাগ গেড় েতালার পরসতুিত শুরু কের িদেয়েছ। The wall Street Journal/CAREERS AT WORK, JUNE 26, 2013 তািরেখ Lauren Weber  িলখেছ, ” As college costs keep rising and student-loan debt causes national consternation, more Americans are asking whether young people should bother with college. Here, at least, is one point in favor of higher education: Americans who fail to complete at least some post-secondary education – if not a college degree, then an associate’s degree or some college credit — sabotage their chances of landing a job as the economy continues to recover, according to a new report out Wednesday. The U.S. economy will generate 55 million job openings by 2020, according to the Georgetown University Center on Education and the Workforce, and 65% of those jobs will require some training beyond a high-school education. Of the 55 million openings, 24 million are projected to be new positions, with the balance coming from retirements of older workers. Among the fastest-growing sectors will be healthcare, community services, and science-  and technology-related fields. At current matriculation and graduation rates, the U.S. will be short of 5 million workers with post-secondary credentials, the Center predicts. As the U.S. has moved from an industrial economy to one based more on knowledge, jobs have demanded greater levels of education. In 1973, according to the Georgetown Center, 72% of jobs required a high-school education or less. In 2010, that figure was 41%, and by 2020, it will have fallen to 36%. “Employers are chasing skills,” said Anthony Carnevale, the Center’s director. This is a good sign for wage growth, he added. The Center has found that college graduates earn 84% more over their lifetimes than people with only a high-school diploma, and that the gap will continue to widen. Several organizations have shown that the majority of jobs created since the 2007-2009 recession have been low-skill, low-wage positions, primarily in fields such as retail sales, home healthcare and food service. A 2012 report from the National Employment Law Project, for example, found that 58% of the jobs added during the recovery were in categories like these. By contrast, the Georgetown study presents an optimistic view of middle-class job creation for the near future. Carnevale said the Georgetown study uses a broader set of data than studies like NELP’s (which relies on a small sample from the Census Bureau’s Current Population Survey), and that, as a forecast, it is based on projections of steady though slow growth in the U.S. economy between 2010 and 2020. “There is a certain amount of momentum in the economy and the labor market right now, and all the indicators are headed in the same direction,” he said. The shortfall of educated workers will cost the U.S. about $500 billion per year in lost output by 2025, the Center predicted in a 2011 study.”

পাশাপািশ েপরিসেডনট বারাক ওবামা বিহরিবেশব এিশয়ার নতুন গেড় ওঠা দুই বূহৎ রাষটর ভারত এবং িচনেক েমেন িনেলন িবশব বািণজয এবং িবশব শািনতর সবারেথ। তাই সমভবত দীরঘ িদেনর পরতীিখণষত আেমিরকা-ভারেতর মেধয েয সব অকিথত টানা েপােড়ন  িছল তার অবসান  হেয়েছ বলা যায়। েপরিসেডনট বারাক ওবামা িদবতীয় দফার দািয়তব েনওয়ার পর েথেকই আেমিরকার মনদা ধীর গিতেত হেলও কাটেত চেলেছ। ঘুের দাঁড়ােচছ মারিকন অরথনীিত। যার ফেল েবকারতব কমেছ আেমিরকায়। নতুন কের িশেলপর অগরগিত লখণষ করা যােচছ। আরিথকভােব ঘুের দাঁড়ােনার আঁচ েপেয়ই মারিকন শীরষ বযানক েফডােরল িরজারভ ধােপ ধােপ ‘আরিথক তরাণ পরকলপ তুেল েদওয়ার জনয ভাবনা িচনতা করেছ। যিদও এিশয়া এবং ইউেরােজােনর কথা েভেব এই মূহুরেত পকলপ গুিটেয় েনওয়া েথেক িবরত থাকেছ। পরকলপ গুিটেয় েনওয়াটা সামিয়কভােব িতকত অনুভূিত হেলও ভিবষযেতর িবশব অরথনীিতর আগমিন বরতা বেলই মানেত হয়।

ভারতীয় িবেদশ মনতরক সূতেরর খবর, আেমিরকার সেঙগ ভারেতর সমপরক বহুমাতিরক এবং তা করমশ: পরিতিদন নতুন নতুন মাতরায় এিগেয় যােচছ। িবেশষত িশখণষা এবং সবাসথ েখণষতের দুই েদেশর রাষটর নায়করা সামগীক দূিষট েরেখ সমপরক এিগেয় িনেয় েযেত চাইেছন। িদবপািখণষক িবিনমেয়র সংসকূিত ৈতির হেচছ। জুন মােস মারিকন িবেদশ সিচব জন েকির ভারত সফের এেস বেলন, ”আেমিরকা এবং ভারত িশখণষা েখণষতের িবেশব েযাউথ েনতিরতব িদেত পাের।”  জুন ২৬, ২০১৩ তািরেখ  ‘The new Indian express‘  িলখেছ, ‘India and the US have the capacity to lead global education, US Secretary of State John Kerry said Monday as several institutions from the two countries announced tie-ups and collaborations. Kerry, on a three-day official visit to India, said the two countries needed to lead the way as a large young population has to be trained.’  “There are gigantic challenges. People don’t just have to be trained for work, they need to be trained so that they can take part in democracy, so that they know how to decide between fiction and fact. This is something India and the US have the capacity to share with the world,” Kerry said. He said the partnership is two-way, and students from the US are also coming to India. “More exchange promises broadening of horizons,” he said. Welcoming the partnership, Human Resource Development Minister M.M. Pallam Raju said skill development was a key area of focus for India, and US partnership in this field would help. “The median age of India’s population is 28 years. Skill development is an important area. Institution-level collaboration with the community colleges in the US would help,” he said. This is the third round of talks under the Singh-Obama initiative. Eight memoranda of understanding were signed between the two countries. These include the Harvard-India Nutrition Initiative between Harvard School of Public Health and St. John’s Research Institute, Bangalore; an MoU between Aligarh Muslim University and Ohio State University, and between Assam Agricultural University and Washington State University. Prime Minister Manmohan Singh and President Barack Obama announced the Obama-Singh Initiative in November 2009 as an affirmation of their commitment to building an enhanced India-US partnership in education. Each government pledged $5 million for this endeavour, for a total of $10 million.India and the US have the capacity to lead global education, US Secretary of State John Kerry said Monday as several institutions from the two countries announced tie-ups and collaborations. Kerry, on a three-day official visit to India, said the two countries needed to lead the way as a large young population has to be trained. “There are gigantic challenges. People don’t just have to be trained for work, they need to be trained so that they can take part in democracy, so that they know how to decide between fiction and fact. This is something India and the US have the capacity to share with the world,” Kerry said. He said the partnership is two-way, and students from the US are also coming to India. “More exchange promises broadening of horizons,” he said.Welcoming the partnership, Human Resource Development Minister M.M. Pallam Raju said skill development was a key area of focus for India, and US partnership in this field would help. “The median age of India’s population is 28 years. Skill development is an important area. Institution-level collaboration with the community colleges in the US would help,” he said. This is the third round of talks under the Singh-Obama initiative. Eight memoranda of understanding were signed between the two countries. These include the Harvard-India Nutrition Initiative between Harvard School of Public Health and St. John’s Research Institute, Bangalore; an MoU between Aligarh Muslim University and Ohio State University, and between Assam Agricultural University and Washington State University. Prime Minister Manmohan Singh and President Barack Obama announced the Obama-Singh Initiative in November 2009 as an affirmation of their commitment to building an enhanced India-US partnership in education. Each government pledged $5 million for this endeavour, for a total of $10 million.”  ভারেত ‘িব সকুেলর’ সেঙগ কিমউিনিট কেলেজর পরেয়াজনীতাও িবেশষভােব পরেয়াজন। িশখণষা েখতের েযাউথ উেদযােগ ভারত এবং আেমিরকার মেধয একিট চুকিত সমপূরণ হেয়েছ। আগামী িদেন ভারেত আটিট ঊচচিশখণষার ইনিসটিটউশন গেড় তুলেব আেমিরকা। পরেতযকিট পরকেলপর জনয খরচ ধরা হেয়েছ ২৫০, ০০০ মারিকন ডলার। কূটনীিতকরা দু েদেশর নতুন উেদযাগিটেক েপরিসেডনট বারাক ওবামা এবং পরধামনতির মনেমাহন িসংেহর একুশ শতেকর উপহার বেল উেললখ করেছ। রাজশরী েমেহতা জুন ২৫, ২০১৩ তািরেখ  The Times of India  েত িলখেছন, ” In a continuation of the educational partnership between India and the United States, the State Department is pleased to announce the eight institutional partnership projects below for the second round of Obama-Singh 21st Century Knowledge Initiative awards. This initiative strengthens collaboration and builds partnerships between American and Indian institutions of higher education in priority fields. Each project will receive an award of approximately $250,000 that can be utilized over a three year period, with the objectives of cultivating educational reform, fostering economic growth, generating shared knowledge to address global challenges, and developing junior faculty at Indian and American institutions of higher learning.”

জুলাই মােসর সফের ভারেতর অরথমনতরী িপ িচদমবরম, বািণজযমনতরী আননদ শরমা এবং েযাজনা কিমশেনর উপাধযখণষ মেনটক িসংহ অহলুয়ািলয়া মারিকন িশলপপিতেদর আেমিরকায় বেস বারতা িদেয়েছন।  খুব তাড়াতািড় কেয়কিট েখণষতের ভারেত িবেদশী লগনীর উরধসীমা বাড়ােনা হেচছ।    জুলাই ১১, ২০১৩    িপ আই িব এর িরেপারেট ভারেতর অরথমনতরীর সফেরর খবর ঊেললখ কের জানান হয়, ”The Union Finance Minister Shri P. Chidambaram who is visiting the United States, met with top American executives and U.S. Senator Max Baucus, Chairman of the Senate Finance Committee . The Finance Minister Shri Chidambaram met Chief Executive Officers (CEOs) and top management officials of a number of American companies with substantial investments in India. Discussions focused on the current business and investment environment in India. The companies included Microsoft, Lockheed Martin, Boeing and International Lease Finance Corporation (ILFC). The issues highlighted by the companies inter alia related to transfer pricing; impact of the Comprehensive Immigration Bill recently passed by the U.S Senate on future business prospects of Indian Information Technology (IT) companies operating in the U.S; and taxation among others. The companies were appreciative of the measures taken to address concerns relating to Transfer Pricing. Finance Minister apprised the companies of the recommendations of the Arvind Mayaram Committee on enhancing FDI caps in many sectors, and the steps being taken to implement the recommendations. He emphasized the need for U.S companies to set-up local manufacturing bases in India, saying “it is in the mutual interest of both countries for India to become a large manufacturing economy”. The Finance Minister Shri Chidambaram also underscored Indian concerns about the provisions in the Comprehensive Immigration Reform Bill relating to skilled non-immigrant visas. Finance Minister met with the Chairman of the US Ex-Im Bank, Mr. Fred Hochberg and other senior officials of the Ex-Im Bank. The Finance Minister Shri Chidambaram met with Senator Max Baucus (D-MT), Chairman of the Senate Finance Committee. They exchanged views on the global economic situation. The Finance Minister mentioned that while some concerns have been expressed about the current business environment in India, the policies adopted by the Government of India are pro-growth and WTO compliant. He stressed that the Government of India is committed to ensuring a transparent, fair and non-discriminatory investment environment for foreign investors seeking to do business in India. During the discussion, Senator Baucus fondly recalled his first visit to India as a young student in the 1960s and his meeting with then Prime Minister Shri Jawaharlal Nehru.”

ভারত-মারিকন বািণজয পিরষেদর সভায় ভারেত লগনী করা সােড় িতনেশা সংসথার শীরষ করতােদর উেদবগ কাটােনার দািয়তব দুই কযািবেনট মনতরী এবং ড: মনেমাহন িসংহেয়র িবেশষ বনধু মেনটক িসংহ অহলুওয়ািলয়ার উপর িছল।  জুলাই ১২, ২০১৩ েত িপ আই িব আরও জানােচছ,  ভারেতর আনতিরকতা েবাঝােত এবং িবেদশী লগনী িবেশষত আেমিরকার সেঙগ েযাউথভােব দীরঘসথায়ী বািণিজযক সমপরক গেড় তুলেত কতটা আগরহী তাঁরা েসটা পিরসকার করেত অরথমনতরী এক ঝাঁক পরিতিনিধসভার সদসযেদর সেঈ ধারাবািহক ৈবঠক কেরন।  ” During his visit to Washington D.C., the Union Finance Minister Shri P. Chidambaram met with Members of House of Representatives of the U.S. Congress yesterday. The present were the Co-Chair of House & India Caucus Congressman Joe Crowley from New York, Congressman Sandy Levin from Michigan, Congressman Erik Paulsen from Minnesota, Congressman John Larson from Connecticut and Congressman Ami Bera from California. Indian Ambassador to US Ms Nirupama Rao and Secretary, Department of Economic Affairs, Ministry of Finance Dr. Arvind Mayaram were also present during the hour-long meeting.There was a wide ranging discussion that covered the gamut of Indo-US relations. More specifically, issues such as compulsory licensing, patent protection, preferential market access, immigration bill in the US Congress and increase in FDI in areas such as defence and financial services were discussed. The Finance Minister reiterated that there is close cooperation between the two countries in areas such as security and defence etc. and the civil nuclear agreement between the two countries was path breaking landmark. He also explained that Indian law affirms intellectual property rights (IPRs) and the process of granting compulsory license and patent registration are WTO compliant and subject to judicial review. The Finance Minister Shri Chidambaram also emphasized the importance of India becoming a manufacturing hub for meeting its own domestic needs and for rebalancing the global economy. On immigration, the Finance Minister expressed India’s discomfort especially because the issue of temporary relocation of knowledge workers (which is not ‘immigration’ by any definition) has been linked to the larger issue of immigration. In his view, the restrictions sought to be placed on knowledge workers amount to non-tariff barriers.The Members of Congress spoke of their deep interest in promoting India-U.S. relations and advancing mutually beneficial cooperation between the two countries. They appreciated the opportunity to exchange views with the Finance Minister and stressed the value of continuing such dialogues and engagement to accelerate the deepening of the India-U.S. strategic partnership. The Finance Minister Shri Chidambaram also had useful discussions with Senator Mark Warner of Virginia and Senator John Cornyn of Texas, Co-Chairs of the Senate India Caucus. The Wal-Mart representatives also called on the Finance Minister.”

আধুিনক ভারত ‘বািণেজয বসিত লখণষী-সরসবতী’ এর পীঠসথান গেড় তুেল এিশয়া এবং অনুননত েদশগুিলর কােছ বারতা িদেত চাইেছ ‘দাদািগির’ নয় উননয়েনর সবারেথ ইউিপএ-২ সরকার সব রকেমর ঝুিঁক িনেত পরসতুত। িবংশ শতাবদীর িবশব মানবতার িচনতা নায়ক েনায়াম চমিসক ( Noam Chomsky) িলখেছন, ”The ideological issue that you rightly bring-up is the impact of Neoliberalism. It’s pretty striking over the last twenty-five years, overwhelmingly it’s true, that the countries that have adhered to the Neo-liberal rules have had an economic catastrophe and the countries. that didn’t pay any intention to the rules. Chile is claimed as being a market economy economy but that’s highly misleading. It’s main export is a very efficient state owned copper company nationalized under Allende. You dn’t get correlation like this in economics very often. Adherence to the Neo-liberal rules has been associated with economic failure and violation of them with economic success: it’s very hard to miss that. May be some economists can miss it but people don’t: they live it.”

সাগরতীের েরাদ পেড়েছ…….

িবশব নাগিরক হেত না পারেল িনেজর দািরদর েমাচন হয় েকমেন? Califonia Summit  নতুন শতেকর েরাদ বেয় আেন কিবগুরু রবীনদরনাথ ঠাকুেরর ভাষায়। ‘সাগরতীের েরাদ পেড়েছ,  েঢউ িদেয়েছ জেল,/ িঝনুক িনেয় েখেল িশশু বালুতেটর তেল।’ ( কিবতা: চরমমূলয)। েপরিসেডনট বারাক ওবামার আনতিরকতা িনেয় আজ আর েকউ িদবমত হেত পারেবন না। িচেনর সেঙগ িদব-পািখণষক সমপরকেক আরও মজবুত করেত মারিকন েপরিসেডনট বােরবাের হাত বািড়েয় েরেখেছন। এবার এিগেয় এেলন  িচেনর নতুন েপরিসেডনট িজ িজং িপং। জুন মােসর ৮ তািরখ আেমিরকার কযািলফরিনয়ায় দুই বূহৎ রাষটেরর পরধান অতযনত সনতরপেণ িদব -পািখণষক বািণিজযক িবষয়ক আেলাচনা সহ আরও িক িক িবষেয় গরুতব িদেলন? দুজেনর সাখণষােতর পের িচেনর েপরিসেডনট িজ িজন িপং সাংবািদকেদর বেলন, ” a new historical starting point.”  েপরিসেডনট বারাক ওবামা বেলন, ”can did and constructive conservation is critically important.” জুন ২৭, ২০১৩ Brookings িলখেছ। U.S.-China Relations: A New Path?  ”The California “informal summit” between President Obama and President Xi Jinping and the upcoming annual meeting of the Strategic and Economic Dialogue in Washington in early July have generated new possibilities in U.S.-China relations. How realistic are the expectations of a new type of major power relations? What are the major issues that will shape bilateral relations in coming years, and how might they be influenced by the domestic policy agendas of both leaderships? What are some of the possible consequences for regional security, politics, and economics?
On June 27, three Brookings experts convened a discussion to examine the issues and choices confronting both leaderships, reviewed the results of the California summit and assessed the road ahead in U.S.-China relations.” দুই বূহৎ শিকতর রাষটর েনতার সাখণষাৎকার মেন কিরেয় িদেচছ আর এক িবশয় নাগিরক তথা সননাসীর কথা। সবামী িবেবকাননদ ১৮৯৪ সােল নেভমবর মােস িশকােগা েথেক বেলিছেলন, ”েলােক িক বলল– েসিদেক আিম ভরুেখণষপ কির না, আিম ভগবানেক, আমার ধরমেক, আমার েদশেক— সরবপির দিরদর িভখণষুকেক আিম ভােলাবািস। িনপীিড়ত, অিশিখণষত ও দীনহীনেক আিম ভােলাবািস। মানুেষর সতুিত-িননদায় আিম দূকপাতও কির না।” এক সননাসীর আেবগমিথত আেবদন আজেকর বাসতবতায় সবটা না িমলেলও দািরদর মুিকত, অিশখণষা েথেক িবশবেক মুিকতর সবাদ িদেত সবামীজীর হাত ধরেত েকউ িদবধা করেব বেল মেন হয় না।

# # # #


Advertisements

2 Comments

Filed under Uncategorized

2 responses to “বািণেজয বসিত লখণষী-সরসবতী

  1. Devjyoti Chowdhury

    Likhte thako, Amader egie rakho. Namaskar

    • েতার এই অনুভব আমােক মানিসকভােব সিমমিলত করেব। েচষটা করব িনেজেক আরও সংযত করেত। শুেভচছা রইল। সবাই ভােলা থাকুক।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s